সংবাদ শিরোনাম:

দিনাজপুরে লবণ খাইয়ে নবজাতককে হত্যা

দিনাজপুর সদর উপজেলার চোওড়া গ্রামে ইয়ানুর নামে ১৫ দিন বয়সী এক নবজাতককে লবণ খাইয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে সৎ ভাবি আরফাতুন মিমিকে (২২) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তিনি সদর উপজেলার চোওড়া গ্রামের হাসিনুর রহমানের স্ত্রী।

জানা যায়, সদর উপজেলার চোওড়া গ্রামের নুর ইসলাম প্রথম স্ত্রীর মৃত্যুর পর দ্বিতীয় বিয়ে করেন। দ্বিতীয় স্ত্রী নারগিস বেগম গত ১৫ দিন আগে একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। তার নাম রাখা হয় ইয়ানুর বেবী। গত শুক্রবার দুপুরে ঘরে ইয়ানুরকে রেখে মা নারগিস বাইরে গেলে ঘুরে এসে সন্তানকে মৃত অবস্থায় দেখেন। এ সময় সন্তানের মুখে ফেনা ও লবণ দেখতে পান তিনি। এতে বাড়ির সবাই সন্দেহ করেন যে ইয়ানুরকে লবণ খাইয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনার সঙ্গে একই বাসায় থাকা সৎ ভাবি আরফাতুন মিমিকে সন্দেহ করা হয়। গ্রামের লোকজন তাকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মিমিকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

লাশ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় ইয়ানুর বেবীর বাবা নুর ইসলাম পুত্রবধূ আরফাতুন মিমিকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মো. দুলাল জানান, আসামিকে শনিবার বিকেলে আদালতে চালান দিয়ে ৭ দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে বাড়ির জমি নিয়ে এ হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হতে পারে।

 242 total views,  1 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top