সংবাদ শিরোনাম:

চীনের অর্থনীতিতে করোনাভাইরাসের হানা, বিশ্বব্যাপী অস্থিরতার আশঙ্কা

২০১৯-এনসিওভি। এই নামেই পুরো বিশ্বে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে নতুন করোনাভাইরাস। এই রোগের শুরু চীনে, এখন ছড়িয়ে গেছে বেশ কয়েকটি দেশে। মৃত্যুর সঙ্গে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যাও। শুধু মানুষের জীবন নয়, এখন চীনের অর্থনীতির জন্যও হুমকি হিসেবে দেখা দিয়েছে করোনাভাইরাস। আর চীন যখন হুমকিতে, তখন বৈশ্বিক অর্থনীতিও নিরাপদে থাকতে পারছে না।

চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহানকে এই করোনাভাইরাসের আঁতুড়ঘর হিসেবে ধারণা করা হচ্ছে। গত ডিসেম্বরে প্রথম এই রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। সর্বশেষ পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসে তিন শর বেশি মানুষের প্রাণহানি হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ হাজার ছাড়িয়েছে। চীনের বাইরে ২৫টির বেশি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। এর মধ্যে চীনের বাইরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম একজনের মৃত্যু হয়েছে ফিলিপাইনে। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, ২০০৩ সালের সার্স ভাইরাসের চেয়েও মারাত্মক হতে পারে করোনাভাইরাস। এরই মধ্যে আক্রান্তের সংখ্যায় সার্সকে ছাড়িয়ে গেছে এটি।

চীনের উহান এখন কার্যত একটি অবরুদ্ধ এলাকায় পরিণত হয়েছে। বিভিন্ন দেশ উড়োজাহাজ পাঠিয়ে উহানে থাকা নিজেদের নাগরিকদের ফিরিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। করোনাভাইরাসের ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে উহান শহর ও হুবেই প্রদেশে নেওয়া হয়েছে কঠোর প্রতিরোধব্যবস্থা। সাধারণত কোনো মহামারি রোগের সংক্রমণ ঠেকাতে শুরুতেই এ কাজ করা হয়। তবে নিন্দুকেরা বলছেন, চীন এ ব্যাপারে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে দেরি করে ফেলেছে। আর এ কারণেই দেশে দেশে করোনাভাইরাসের ছড়িয়ে পড়া ঠেকানো যায়নি। ডিসেম্বর থেকে প্রাদুর্ভাব দেখা দিলেও, চীনের সরকার এ বিষয়ে কিছুটা রাখঢাক করতে চেয়েছিল। এই ভাইরাস–সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্য (যেমন: জিনোম সিকোয়েন্স) বিশ্বকে জানাতেও দেরি করেছে সি চিন পিংয়ের সরকার। এই সময়ের মধ্যে উহান বা হুবেই থেকে আক্রান্ত মানুষেরা বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে পড়েছে। এমনকি উহানকে কোয়ারেন্টাইন করার ঘোষণা দেওয়ার পর তা কার্যকর করা নিয়েও বিলম্বের অভিযোগ উঠেছে। বলা হচ্ছে, উহানকে কোয়ারেন্টাইন করার ঘোষণার প্রায় ৮ ঘণ্টা পর তা কার্যকর করা হয়। ধারণা করা হচ্ছে, এর মধ্যে প্রায় ১০ লাখ মানুষ উহান ছেড়ে যায়, যাদের অনেকেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিল।

 105 total views,  1 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top