স্ত্রী ডিভোর্স দিলে দেন মোহরের সমপরিমাণ টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি

স্ত্রী ডিভোর্স দিলে দেন মোহরের সমপরিমাণ টাকা ক্ষতিপূরণের দাবিতে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ মেনস রাইটস ফাউন্ডেশন (বিএমআরএফ)।

সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে পুরুষ নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস উদযাপন উপলক্ষে এ মানববন্ধন করা হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, গত বছরের জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত ছয় মাসে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মোট চার হাজার ৫৬৭টি বিবাহ বিচ্ছেদের আবেদন জমা পড়েছে। একদিনে সর্বোচ্চ বিবাহ বিচ্ছেদের জন্য ২৬টি আবেদন করা হয়েছে। এর মধ্যে মাত্র পাঁচ শতাংশ দম্পতি বিচ্ছেদে না গিয়ে পুনরায় সংসার করার বিষয়ে একমত হয়েছেন।

এক পর্যবেক্ষণের কথা উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, ঢাকার উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বিচ্ছেদের আবেদনের প্রায় ৭০ শতাংশই নারী পক্ষ থেকে করা হয়েছে। উত্তর সিটির গুলশান ও বনানীর অভিজাত পরিবারের শিক্ষিত, বিত্তবান নারী এবং দক্ষিণের মোহাম্মদপুর ও কারওয়ান বাজারের কর্মজীবী নারীরা তুলনামূলক বেশি বিচ্ছেদে যেতে চাচ্ছেন।

নারী নির্যাতন এবং যৌতুকের মামলা গুলো বিশ্লেষণ করে সংগঠনের চেয়ারম্যান শেখ খাইরুল আলম বলেন, দুষ্টু নারীরা বিয়ের নামে কাবিনের ব্যবসা করে নিরীহ পুরুষের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। আর দেন মোহরের টাকা আদায়ের জন্য করা হচ্ছে অধিকাংশ মামলা।

তিনি বলেন, পুরুষ নির্যাতন প্রতিরোধ দিবসে আমাদের একটাই দাবি, স্ত্রী ডিভোর্স দিলে দেনমোহরের সমপরিমাণ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। ২০১৬ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি পুরুষ নির্যাতন প্রতিরোধ আন্দোলন যাত্রা শুরু করে। সেই থেকে এদিন পুরুষ নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস হিসেবে পালন করে আসছি।

এ দিবসটিকে জাতীয় এবং আন্তর্জাতিকভাবে পালনের দাবিও জানান সংগঠনের চেয়ারম্যান।

বাংলাদেশ মেনস রাইটস ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান শেখ খায়রুল আলমের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন ঢাকা মহানগরের আহ্বায়ক মো. তাইফুর রহমান, যুগ্ম-আহ্বায়ক মাজেন ইবনে আজাদ, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

 142 total views,  2 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top