শিবচরে ফ্ল্যাটে কিশোরীর অর্ধগলিত লাশ

মাদারীপুরের শিবচরে একটি ফ্ল্যাট থেকে অজ্ঞাত এক কিশোরীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ সোমবার দুপুরে পৌরসভার গুয়াতলা এলাকার শহীদ মজুমদারের ফ্ল্যাটের একটি কক্ষ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। পুলিশ জানায়, ওই কিশোরীর প্রায় পুরো শরীর পচে-গলে গেছে। তাই তার পরিচয় জানা যায়নি। কিশোরীর বয়স আনুমানিক ১৪-১৫ বছর হবে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, এক মাস আগে স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে এক দম্পতি ওই ফ্ল্যাটের নিচ তলার একটি কক্ষ ভাড়া নেন। এ সময় ওই দম্পতির সঙ্গে এক কিশোরী মেয়ে ছিল। বাসা ভাড়া নেওয়ার তিন দিন পর ওই দম্পতি ঘরে তালা দিয়ে চলে যান। এরপর তারা বাসায় ফিরে আসেননি। আজ সকালে ওই ফ্ল্যাট থেকে দুর্গন্ধ ছড়ালে আশপাশের লোকজন বিষয়টি পুলিশকে জানায়। পুলিশ ফ্ল্যাটের কক্ষের তালা ভেঙে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।


চারতলা ভবনটির মালিক সৌদিপ্রবাসী শহীদ মজুমদার। তাঁর স্ত্রী শ্যামলী আক্তার বলেন, গত ২৫ জানুয়ারি এক দম্পতি তাঁর নিচতলার ফ্ল্যাটের একটি কক্ষ ভাড়া নেন। সে সময় তাদের সঙ্গে এক কিশোরী ছিল। ভাড়া নেওয়ার সময় তাঁরা একটি ফোন নম্বর দেন। তবে বারবার এনআইডি কার্ড চাইলেও পরে দেবেন বলে জানান। এরপর ৩-৪ দিন ওই দম্পতি বাসাতে ছিলেন। কিন্তু এর পর থেকে বাসাটি তালা মারা ছিল। একাধিক বার ফোন করলে পরে আসবেন বলে তাঁরা জানান। কিন্তু গত কয়েক দিন ধরে নম্বরটা বন্ধ পাওয়া যায়। আজ ওই কক্ষে লাশ থাকার কথা জানা যায়।

শিবচর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আমির হোসেন বলেন, ধারণা করা হচ্ছে লাশটি বেশ অনেক দিন ধরে কক্ষটিতে ছিল। তাই লাশের বেশির ভাগ অংশ পচে-গলে গেছে। চেহারা চেনার কোনো উপায় নেই। থানা-পুলিশের পাশাপাশি পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনও (পিবিআই) ঘটনার তদন্ত করছে।

 281 total views,  2 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top