সংবাদ শিরোনাম:

এমপি’র উপস্থিতিতে সাংবাদিকের ওপর হামলা

তাহেরপুর পৌর আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে দু’গ্রুপের সংঘর্ষের সময় সাংবাদিকদের উপড়ে হামলা চালিয়ে সময় টিভির ক্যামেরা ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় এমপি এনামুল হক ও পৌর মেয়র আবুল কালাম আজাদ গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের সময় এ ঘটনা ঘটে। শনিবার দুপুর একটার দিকে হামলার সময় ছবি তুলতে গেলে সময় টিভির ক্যামেরা পারসন হাবিবুর রহমান পাপ্পুর ক্যামেরা ছিনিয়ে নিয়ে ভাঙচুর করা হয় এবং সাংবাদিকদের উপর হামলা করা হয়।

হামলার শিকার সময় টিভির ক্যামেরাপার্সন হাবিবুর রহমান পাপ্পু জানান, দুপুর ১২ টার দিকে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা পৌঁছালে চরমপন্থী গ্রুপের নেতা আর্ট বাবু তার লোকজন নিয়ে সম্মেলনস্থলে পৌঁছেন। এ সময় পৌর মেয়র কালামের লোকজন আর্ট বাবু সম্মেলনস্থলে কেন পৌঁছলো তা নিয়ে তর্কে জড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে তারা আর্ট বাবুর লোকজনের উপর হামলা করে।এসময় হামলার ছবি তুলতে গেলে সময় টিভির ক্যামেরা কেড়ে নিয়ে ভাঙচুর করা হয় এবং সাংবাদিকদের উপর হামলা করা হয়।
সম্মান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী জেলা কমিটির সভাপতি মেরাজ মোল্লা, রাজশাহী জেলার সাধারণ সম্পাদক কাজী আব্দুল ওয়াদুদ দারা, যুগ্মসম্পাদক আইনুদ্দীন ও স্থানীয় এমপি এনামুল হক। তাদের উপস্থিতিতে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ পাহারায় আট বাবু ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় সংবাদ কমীদের উপর হামলার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সাংবাদিকেরা।

 304 total views,  1 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top