নোয়াখালীতে মহিলা নেত্রীকে শ্লীলতাহানী, আওয়ামীলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ
নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে রূপসা বেগম নামে মহিলা নেত্রীর শ্লীলতাহানী, বসতঘর ভাংচুর ও পরিবারের উপর হামলা করায় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা ইকবাল হোসেনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। শনিবার দিবাগত রাত্রে বজরা ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী ও বজরা গ্রামের মমিন হোসেনের স্ত্রী রূপসা বেগম ইকবাল হোসেনসহ ৮জনকে আসামি করে মামলাটি করেন।
ভুক্তভোগী ও মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বজরা গ্রামের মমিন হোসেনের স্ত্রী ও বজরা মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী রূপসা বেগমের সাথে রাজনীতি নিয়ে কথিত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ইকবাল হোসেনের সাথে বিরোধ চলে আসছিল।

এ নিয়ে ২১ অক্টোবর রাত ৮টার দিকে ইকবাল হোসেনের নেতৃত্বে বজরা গ্রামের আব্বাস ওরপে আব্বাইচ্যা চোরার ছেলে সন্ত্রাসী সম্রাট, নাছির, সালাউদ্দিন ও রকিসহ ৮/১০জন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে দলবদ্ধ হয়ে রূপসার বাড়িতে অতর্কিতভাবে হামলা চালায়।
এসময় মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী রূপসা বেগম বাধা প্রদান করিলে তাকে মাটিতে ফেলে শ্লীলতাহানী করার সময় তার ছেলে জীবন হোসেন (২২), আনন্দ হোসেন (২৮), মেয়ে আয়েশা বেগম (১৮), তার মা সেতারা বেগম (৬০) প্রতিরোধ গড়তে আসলে ইকবাল বাহিনী তাদের এলোপাতাড়ি পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করে।
পরে সন্ত্রাসীরা রূপসা বেগমের বসত ঘর ভাঙ্চুর করে নগদ অর্থ ও স্বর্ণালংকার লুটে করে নেয়। এ নিয়ে রূপসা বেগম বাদী হয়ে সোনাইমুড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
রূপসা বেগম জানান, নামধারী আওয়ামীলীগ নেতা দুঃশ্চরিত্রহীন ইকবাল হোসেন দীর্ঘদিন ধরে তাকে বিভিন্ন ধরনের ক-ুপ্রস্তাব দিয়ে আসছে। তার এ ধরনের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তাকে রাজনৈতিকভাবে হয়রানি করে। ২১ অক্টোবর রাত ৮টার দিকে সন্ত্রাসী নিয়ে তার বাড়িতে হামলা চালিয়ে তার পরিবারের লোকজনদের রক্তাক্ত করে ফেলে।তিনি ইকবাল ও তার সহযোগীদের সর্বোচ্চ শাস্তি কামনা করেন। আর যেন কোনো নিরীহ মহিলা রুপোর ইকবাল বাহিনী এভাবে হামলা করতে না পারে। এবিষয়ে অভিযুক্ত ইকবালের মুঠোফোনে কল দিয়েও তার সাথে যোগাযোগ করা যায়নি।

সোনাইমুড়ী থানার ওসি গিয়াস উদ্দিন এ ঘটনায় মামলা হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অভিযান করে মামলার এজহার ভুক্ত নাছিরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

 210 total views,  1 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top