আত্মসমর্পণের পর কারাগারে স্বাস্থ্যের গাড়িচালক মালেকের স্ত্রী

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুদকের করা মামলায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গাড়িচালক মালেক ওরফে ড্রাইভার মালেকের স্ত্রী নার্গিস বেগমের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েসের আদালতে তিনি আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এর আগে মঙ্গলবার আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আলোচিত গাড়িচালক আবদুল মালেক ও তার স্ত্রী নার্গিস বেগমের বিরুদ্ধে চার্জশিট অনুমোদন দেয় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। মালেক দম্পতির বিরুদ্ধে প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে চলতি বছরের ১৫ ফেব্রুয়ারি পৃথক দুটি মামলা করে দুদক। অনুমোদিত চার্জশিটে মালেকের বিরুদ্ধে ৯৩ লাখ ৫৩ হাজার ৬৪৮ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন এবং এক কোটি ৫০ লাখ ৩১ হাজার ৮১০ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনসহ মোট দুই কোটি ৪৩ লাখ ৮৫ হাজার ৫৫৮ টাকার সম্পদ পাওয়ার তথ্য উল্লেখ করা হয়। এছাড়া অন্য মামলায় আবদুল মালেক ও তার স্ত্রী নার্গিস বেগমকে আসামি করা হয়। এ মামলায় নার্গিস বেগমের দুই কোটি ১২ লাখ ৩৫ হাজার ৪৩১ টাকার সম্পদের তথ্য উল্লেখ করা হয়, যার বিপরীতে বৈধ উৎস পাওয়া যায় এক কোটি এক লাখ ৪৩ হাজার ৩৮২ টাকা। অবশিষ্ট এক কোটি ১০ লাখ ৯২ হাজার ৫০০ টাকার সম্পদ অবৈধ উপায়ে অর্জিত। তার বিরুদ্ধে দুদক আইন ২০০৪ এর ২৭ (১) ও ২৬ (২) ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে। এদিকে গত ২০ সেপ্টেম্বর স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গাড়িচালক আবদুল মালেককে অস্ত্র আইনের মামলায় এক ধারায় ১৫ বছর ও আরেক ধারায় তাকে ১৫ বছরের কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। তবে দুই ধারায় সাজা একসঙ্গে চলবে বলে বিচারক রায়ে উল্লেখ্য করেন। ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ রবিউল এ রায় ঘোষণা করেন।

 85 total views,  1 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top