কারাভোগ শেষে দেশে ফিরেছেন ভারতে পাচার ২ নারী

কাজের প্রলোভন দেখিয়ে দালালের মাধ্যমে ভারতে পাচার হওয়া দুই বাংলাদেশি নারীকে বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে দেশে ফেরত পাঠিয়েছে ভারতীয় পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ যশোরের বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে তাদের হস্তান্তর করে। ফেরত আসা নারীরা হলেন-যশোরের মনিরামপুর থানার নোয়ালী গ্রামের আবদুস সামাদের মেয়ে খাদিজা খাতুন শাপলা (২৩) ও নড়াইল জেলার কালিয়া থানার বেন্দারচর গ্রামের আবদুল মান্নানের মেয়ে আলোমতি খাতুন (২৪)। খাদিজা খাতুন জানান কাজের আশায় দালালের মাধ্যমে ভারত যান তিনি। সেখানে ব্যাঙ্গালোরে গৃহকর্মী হিসেবে কাজ করতেন তিনি। সেখানেই ধরা পড়েন পুলিশের হাতে। ৫ বছর ভারতীয় কারাগারে থাকার পর মুক্তি পেয়েছেন তিনি। আলোমতি খাতুন জানান, চার মাস কারাগারে ছিলেন তিনি। বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ওসি আহসান হাবিব জানান, দালালদের খপ্পরে পড়ে এই নারীরা সীমান্তের অবৈধ পথ দিয়ে ভারতে প্রবেশ করেন। পরে তারা সেদেশের পুলিশের কাছে ধরা পড়েন। এরপর তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। পরে ‘রিটার্নসোল’ নামে বেসরকারি একটি এনজিও সংস্থা কারাগার থেকে তাদের ছাড়িয়ে এনে শেল্টার হোমে রাখেন। এরপরে তাদের দেশে ফেরত পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়। ‘জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার’ নামে একটি সংগঠনের কর্মকর্তা রোকেয়া খাতুন জানান, ফেরত আসা দুই নারীকে ইমিগ্রেশন ও বেনাপোল পোর্ট থানার আনুষ্ঠানিকতা শেষে যশোর নিয়ে যাওয়া হবে। পরে তাদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

 95 total views,  2 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top