‘গরিবের টাকা পাচারকারীদের জনগণ কখনও ভোট দেবে না’

অনলাইন ডেস্ক: বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, গরিবের টাকা লুট করে বিদেশে পাচার করা দলকে জনগণ কখনও ভোট দেবে না।

তিনি বলেন, এরা দেশের গরিবের টাকা লুট করে বিদেশে পাচার করেছে। গরিবের ধনসম্পদ চুরি করে অর্থ সম্পদের মালিক হয়েছে। বিদেশে বসে আরাম আয়েশে আছে। পলাতক আসামি যে দল চালায় তাদেরকে কোন আশায় মানুষ ভোট দেবে?

আজ শুক্রবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সভায় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

এসময় জনগণকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, দেশ জুড়ে এতো উন্নয়নের পরেও কিছু লোক বিদেশে বসে অপপ্রচার চালাচ্ছে। এদের বিরুদ্ধে সচেতন হতে হবে। অপপ্রচারের জবাব দিতে হবে।

আওয়ামী লীগ বহুদলীয় গণতন্ত্রে বিশ্বাসী জানিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, যে কেউ দল করতে পারবেন। কাউকে বাধা দেয়া হবে না। বাংলাদেশ এখন বিশ্বে মর্যাদাপূর্ণ অবস্থানে এসে গেছে। আমরা জনগণের কল্যাণে কাজ করছি। উন্নয়নের ছোঁয়া গ্রাম পর্যন্ত পৌঁছেছে গেছে। সকল শ্রেণি পেশার মানুষ উন্নয়নের ছোঁয়া পেয়েছে।

‘কিছু মানুষ মিটিং করছেন কী করে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতা থেকে সরানো যায়। জনগণের শক্তি আওয়ামী লীগের শক্তি। আমরা জনগণের সেবায় কাজ করে যাচ্ছি।’

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, আমরা যতই ভালো কাজ করি না কেন বিদেশে বসে কিছু লোক দেশের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করছে। আমাদের কিছু মানুষ আছে যারা হাজার অপরাধ করলেও অপরাধী হিসেবে দেখে না। দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বললেও দুর্নীতির জন্য সাজাপ্রাপ্তদের পক্ষ নেয়। যারা হাজার হাজার কোটি টাকা যারা বিদেশে পাচার করেছে। এতিমের টাকা আত্মসাৎ করে সাজাপ্রাপ্তদের জন্য মায়াকান্না করছে।

এসময় কুমিল্লার একটি মণ্ডপে কোরআন রাখার প্রসঙ্গ এনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, একজন মুসলমান হয়ে কীভাবে হনুমানের সামনে কোরআন শরীফ রেখে কোরআন শরীফের অবমাননা করে? এদের পেছনে কারা সব তদন্তে বেরিয়ে আসবে।

 61 total views,  1 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top