সংবাদ শিরোনাম:
«» দক্ষিণ আফ্রিকায় ২৪ ঘণ্টায় দ্বিগুণ হয়েছে ওমিক্রনে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা «» আফ্রিকা থেকে কেউ দেশে এলে বোর্ডিং পাস দেওয়া হবে না : পররাষ্ট্রমন্ত্রী «» আগামী বহু বছর ধরে প্রতি বছর করোনা ভাইরাসের টিকা নিতে হবে: ফাইজার প্রধান «» নারী কনস্টেবলের সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা ইন্সপেক্টর «» ১৬ ডিসেম্বর দেশের মানুষকে শপথ পড়াবেন প্রধানমন্ত্রী «» দেশ ছেড়ে পালানোর পরিকল্পনা করেছিলেন আব্বাস «» সরকার খালেদা জিয়াকে স্তব্ধ করে দিতে চায়: ফখরুল «» দীর্ঘদিন পর সুপ্রিম কোর্টের শারীরিক উপস্থিতিতে বিচারকাজ শুরু «» মারধর-ধর্ষণচেষ্টা মামলায় পরীমণির নারাজি «» ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে বৃষ্টির আভাস

এখনো মাস্ক খুলে ঘোরার সময় হয়নি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক: অন্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি ভালো আছে এমন দাবি করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, পরিস্থিতি ভালো হলেও এখনো মাস্ক খুলে ঘোরার সময় হয়নি। ভালো অবস্থায় আছি এটা ধরে রাখতে হবে।

বুধবার দুপুরে রাজধানীতে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে মৃগীরোগ চিকিৎসার গাইড লাইনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, অন্যদেশের চেয়ে বাংলাদেশে করোনা নিয়ন্ত্রণে আছে। তবে এখনো মাস্ক খুলে ঘোরাফেরা করার সময় আসেনি। মাস্ক পরতে হবে।

টিকা নিয়ে জাহিদ মালেক বলেন, আগামীতে আরও বড় আকারের ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। ২৫ শতাংশ মানুষ দুই ডোজ করোনা টিকা পেয়েছেন। এ পর্যন্ত দেশের ৪০ শতাংশ মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। এটা চলতে থাকবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনা নিয়ে এখনো হুমকিতে আছি সবাই। ১০ থেকে ১৫ দিনে বদলে যেতে পারে পুরো চিত্র। তাই সাবধানে থাকতে হবে। ভালো পরিস্থিতি ধরে রাখতে হবে।

অন্যান্য রোগীদের নিয়ে সরকার যেমন কাজ করছে, মৃগী রোগীদের জন্যও কাজ করবে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, নিউরো সমস্যায় যারা পড়েন তাদের জন্য নিউরোসায়েন্স ইনস্টিটিউট তৈরি করা হয়েছে। নাক, কান গলা ইনস্টিটিউট করা হয়েছে। আমরা মনে করি ইপিলিপসি রোগীদের জন্যও আধুনিক প্রতিষ্ঠান করার জন্য কাজ করবো।

দেশে ২০ লাখ অটিস্টিক শিশু আছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, মৃগী রোগ নিয়ে গ্রামে একসময় অনেক ভুল ধারণা ছিলো। বলতো ভুতে ধরেছে। কিন্তু এটা ভুল ধারণা। গর্ভবতী মা যদি আঘাতপ্রাপ্ত হয় বা ডেলিভারির সময় মায়ের অক্সিজেন স্বল্পতা দেখা দিলে বাচ্চাদের এই সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

সোসাইটি অফ নিউরোলজিস্ট বাংলাদেশের সভাপতি অধ্যাপক ডা. ফিরোজ আহমেদ কোরাইশীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিএসএমএমইউর উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব (স্বাস্থ্য শিক্ষা), আলী নূর, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম, বিসিপিএস সভাপতি অধ্যাপক ডা. কাজী দীন মোহাম্মদ প্রমুখ বক্তব্য দেন।

 43 total views,  2 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top