করোনায় চিকিৎসা সংকটে বিশ্বের ৫০ কোটির বেশি মানুষ

অনলাইন ডেস্ক: করোনাভাইরাস মহামারি বিশ্বে আট লাখের বেশি মানুষে প্রাণ কেড়েছে। শনাক্ত হয়েছেন ২৭ কোটিরও বেশি মানুষ। শুধু প্রাণের বিনাশই নয়, এই মহামারিতে বিপর্যস্ত হয়েছে বিশ্ব অর্থনীতি। স্থবির হওয়া অর্থনীতির কারণে চাকরি ও কাজ হারিয়েছেন কোটি কোটি মানুষ। ফলে সংকুচিত অর্থনীতিতে চিকিৎসা সংকটে ৫০ কোটির বেশি মানুষ।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) ও বিশ্ব ব্যাংক বলছে, এসময়ে চিকিৎসার খরচ মেটাতে গিয়ে বিশ্বের ৫০ কোটির বেশি মানুষ চরম দারিদ্র্যের দিকে চলে গেছে। চিকিৎসা ব্যয় মেটাতে তারা অপারগ অবস্থায় আছে। তাই বিশ্বের প্রতিটি দেশের স্বাস্থ্যসেবার বাজেট বাড়াতে বিবৃতিতে আহ্বান জানানো হয়েছে। সংস্থা দুটি আশঙ্কা করছে করোনা মাহামারি পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে নিয়ে যেতে পারে।

ডব্লিউএইচও ও বিশ্ব ব্যাংকের যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, ৩০ এর দশকের পর করোনা মহামারি সবচেয়ে বাজে অর্থনৈতিক সংকটের সৃষ্টি করেছে। ফলে সাধারণ মানুষের জন্য স্বাস্থ্য সেবার খরচ বহন করা অনেক কঠিন হয়ে পড়েছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ১০ বছরের মধ্যে এই প্রথম অন্যান্য রোগের টিকাদান কর্মসূচি অনেকাংশে বিঘ্নিত হয়েছে। যক্ষা ও ম্যলেরিয়ার মতো রোগেও মৃত্যুহার বেড়েছে।

ডব্লিউএইচওর মহাপরিচালক তেদরোস আধানম গেব্রেয়াসুস বিভিন্ন দেশের সরকার প্রধানদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেছেন, মহামারির এই সংকটময় সময়ে তারা যেন প্রত্যেক নাগরিকের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করে।

বিনামূল্যে ও স্বল্প খরচে প্রত্যেক নাগরিক যেন স্বাস্থ্যসেবা পায় সে বিষয়ে বিভিন্ন দেশের সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

বিশ্ব ব্যাংকের স্বাস্থ্য, পুষ্টি ও জনসংখ্যাবিষয়ক আন্তর্জাতিক পরিচালক হুয়ান পাবলো উরিবে বলেন, সব দেশের সরকারের উচিৎ আর্থিক সীমাবদ্ধতার মধ্যেও স্বাস্থ্য বাজেট বাড়ানো। সূত্র: রয়টার্স।

 47 total views,  1 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top