সংবাদ শিরোনাম:

বাড়ি বাড়ি থেকে লোকজন ধরে নিয়ে যাচ্ছে চীনা কর্মকর্তারা

করোনাভাইরাসে চীনের হুবেই প্রদেশে মৃতের সংখ্যা ৮০০ ছাড়িয়েছে। এই প্রদেশেরই উহান শহর থেকে ছড়িয়েছে এই প্রাণঘাতি ভাইরাসটি। সংক্রমণ ঠেকাতে শহরের এক কোটি ৪০ লাখ বাসিন্দার কতজনকে পৃথক করে রাখা হবে কিংবা তাদের কোথায় রাখা হবে তা এখনো অজানা।

উহানের কর্মকর্তারা বাড়ি বাড়ি যেয়ে বাসিন্দাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করছেন। কারো দেহে ভাইরাসের উপস্থিতি থাকার প্রাথমিক তথ্য পাওয়ার পরপর তাদেরকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন জানিয়েছে, শনিবার পর্যন্ত দেশটিতে ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা ৩৭ হাজার ১৯৮ জনে দাঁড়িয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, উহানের চাংকিংয়ে করোনাভাইরাস আক্রান্ত সন্দেহভাজন এক ব্যক্তিকে কোয়ারিন্টিনে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছেন। কিন্তু ওই ব্যক্তি হঠাৎ করেই দৌড় দিয়ে পালানোর চেষ্টা করছেন। হতচকিত কর্মকর্তারা দ্রুত তার পিছু ধাওয়া করেন।

সাংহাইয়ের কাছাকাছি সুঝৌ এলাকার আরেকটি ভিডিওতে দেখা গেছে, প্রতিরোধক পোশাক পরিহিত কর্মকর্তারা ভাইরাস আক্রান্ত সন্দেহভাজন এক ব্যক্তিকে তার বাড়ি থেকে টেনেহিচড়ে বের করে আনছেন।

চীনা সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, কেন্দ্রীয় সরকার উহানের সব সন্দেহভাজন রোগী এবং যাদের সঙ্গে কোয়ারিন্টিনে রাখা ব্যক্তিদের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে এমন সবাইকে কোয়ারিন্টিনে রাখার আদেশ দিয়েছে।

উপপ্রধানমন্ত্রী সান জানিয়েছেন, চার ধরনের লোককে বাধ্যতামূলকভাবে কোয়ারিন্টিন বা সাময়িক অন্তরীণ কেন্দ্রে রাখা হচ্ছে- নিশ্চিতভাবে আক্রান্ত, সন্দেহভাজন ব্যক্তি, আক্রান্ত দুজনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল এমন ব্যক্তি এবং যাদের দেহে জ্বর রয়েছে।

 269 total views,  1 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top