সংবাদ শিরোনাম:

শিক্ষার্থীদের কাছে জনপ্রিয় ‘ওসি আঙ্কেল’

ওসি আঙ্কেলকে ফোন দিল সিটি গার্লস স্কুলের ছাত্রী। এরপর তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে স্কুলগামী মেয়েদের উত্যক্ত করার সময় হাতেনাতে ৪ বখাটেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এখন আর বগুড়া শহরের ভেতরে চলার পথে কোনো বখাটে ডিস্টার্ব করে না ছাত্রীদের।

গ্রামের মধ্যে জুয়ার আসর বসতো প্রায় দিনই। কোনোভাবেই বন্ধ হচ্ছিল না। অবশেষে ওসি আঙ্কেলকে ফোন করায় জুয়ারীদের থানায় ধরে নিয়ে আসা হয়। আর এর মধ্য দিয়েই বন্ধ হয়ে গেছে দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা জুয়ার আসর।

ঠিক এভাবেই সপ্তাহের প্রায় দিনই বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা তাদের সমস্যাসহ এলাকার সমস্যা ফোনে অবগত করেন ওসি আংকেলকে। আর সেই সমস্যা সমাধানে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ায় শিক্ষার্থীদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন ওসি আঙ্কেল।

পুলিশকে ভয় নয়, বন্ধু ভাবুন’ এমন চিন্তা-চেতনা ধারণ করে জনবান্ধব পুলিশিং কার্যক্রম বিস্তারে কাজ করছেন বগুড়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এস এম বদিউজ্জামান। ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যেন কোনোভাবেই বিপদগামী না হয় তাদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে নৈতিক মূল্যবোধের বিকাশে উদ্যোগ নিয়েছেন তিনি।

জানা গেছে, ২০১৮ সালের ১২মে বগুড়া সদর থানায় যোগদান করেন এস এম বদিউজ্জামান। জেলায় পুলিশের মাসিক কল্যাণ সভায় ১০ বার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ নির্বাচিত হওয়া এই কর্মকর্তা থানার দাপ্তরিক কাজের ফাঁকে এখন পর্যন্ত নিয়মিত স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় যাচ্ছেন। ইতিমধ্যেই ২০টির বেশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সচেতনতা মূলক ক্লাস নিয়েছেন তিনি।

শিক্ষার্থীদের মাঝে পুলিশকে সর্বদা সহযোগিতা পূর্ণ মনোভাব গঠনের লক্ষ্যে কাজ করছেন তিনি। প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে তিনি শিক্ষার্থীদের সাথে গল্পের ভঙ্গিমায় তাদের বিভিন্ন বিষয়ে অবগত করেন। ভালোভাবে পড়াশোনার পাশাপাশি নিজেকে ভালো মানুষ হিসেবে গড়ে তোলাসহ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সমৃদ্ধ দেশ গঠনের লক্ষ্যে আগামীর নেতৃত্ব দেয়ার জন্য তিনি শিক্ষার্থীদের গড়ে উঠার আহ্বান জানাচ্ছেন।দেখা গেছে,  ক্লাসে প্রবেশ করেই বড় সাদা বোর্ডে ‘ওসি আংকেল’ এবং তার মোবাইল নম্বর লিখে দিয়ে ইভটিজিং, বাল্যবিবাহ এবং মাদকের সাথে যুক্ত ব্যক্তিদের তথ্য প্রদান করার জন্য সবাইকে অবগত করেন। যেকোনো সমস্যায় তাঁকে পরপর ২ বার মিস কল দেওয়ার জন্য কোমলমতি শিক্ষার্থীদের আহ্বান জানান তিনি। মাদক, বাল্য বিবাহসহ সকল অন্যায় কাজ থেকে নিজে এবং নিজের পরিবারকে সর্বদা দূরে রাখতে সকল শিক্ষার্থীদের শপথ বাক্যও পাঠ করান তিনি। যার ফলে সদর থানার এই কর্মকর্তা বগুড়ায় শিক্ষার্থীদের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়েছেন ‘ওসি আংকেল’ নামে।

বাঘোপাড়া শহীদ দানেশ উদ্দিন স্কুল এন্ড কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি আমিনুল ইসলাম ডাবলু জানান, তার প্রতিষ্ঠানে সমাবেশ করেছেন সদর থানার ওসি। শিক্ষার্থীদের বাল্য বিবাহ, ইভটিজিং, মাদকসহ অপরাধ থেকে দূরে রাখা এবং তাদের ভালো মানুষ হিসেবে নিজেকে গড়ে তোলার জন্য উৎসাহিত করেছেন। তাঁর এমন প্রশংসনীয় উদ্যোগ শিক্ষার্থীদের আগামীর পথে এগিয়ে যেতে দারুন উৎসাহ দিবে।

 304 total views,  3 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top