সংবাদ শিরোনাম:
«» দক্ষিণ আফ্রিকায় ২৪ ঘণ্টায় দ্বিগুণ হয়েছে ওমিক্রনে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা «» আফ্রিকা থেকে কেউ দেশে এলে বোর্ডিং পাস দেওয়া হবে না : পররাষ্ট্রমন্ত্রী «» আগামী বহু বছর ধরে প্রতি বছর করোনা ভাইরাসের টিকা নিতে হবে: ফাইজার প্রধান «» নারী কনস্টেবলের সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা ইন্সপেক্টর «» ১৬ ডিসেম্বর দেশের মানুষকে শপথ পড়াবেন প্রধানমন্ত্রী «» দেশ ছেড়ে পালানোর পরিকল্পনা করেছিলেন আব্বাস «» সরকার খালেদা জিয়াকে স্তব্ধ করে দিতে চায়: ফখরুল «» দীর্ঘদিন পর সুপ্রিম কোর্টের শারীরিক উপস্থিতিতে বিচারকাজ শুরু «» মারধর-ধর্ষণচেষ্টা মামলায় পরীমণির নারাজি «» ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে বৃষ্টির আভাস

দেশে সাড়ে ১০ লাখ মানুষ দরিদ্র: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

দেশে মাত্র সাড়ে ১০ লাখ দরিদ্র মানুষ বাস করছে জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে গত কয়েক বছরে দেশের দারিদ্র্যসীমা অর্ধেকে নেমে গেছে।

মঙ্গলবার জাতীয় জাদুঘরে আয়োজিত বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। ‘বাংলাদেশের অভ্যুদয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভূমিকা’ শীর্ষক এই রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ‌্যাপক আবদুল মান্নান চৌধুরীর সভাপত্বিতে অনুষ্ঠানে সাংবাদিক ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব শাইখ সিরাজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মোমেন আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু একটি স্বাধীন রাষ্ট্র জন্ম দিয়েছেন। তিনি সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন দেখেছেন। সেই স্বপ্ন তিনি আমাদের মাঝে গেঁথে দিয়েছেন। বাংলাদেশকে সোনার বাংলা গড়া না পর্যন্ত আমাদের ঘুম হারাম হয়ে গেছে। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্নপূরণে আমরা অনেক দূর এগিয়ে গেছি।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর মতো তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বিশ্বমানবতার উদাহরণ ঘটিয়েছেন। বিশ্ব দরবারে প্রধানমন্ত্রীকে ‘মানবতার মা’ হিসেবে শনাক্ত করা হয়।

মন্ত্রী বলেন, বিশ্বে আজ মানবতার সংজ্ঞা বদলে গেছে। এ কারণে মানুষের মধ্যে হিংসা-বিদ্বেষ, হানাহানি-মারামারি শুরু হয়েছে।

সবার সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক তৈরিতে শিক্ষার্থীদের মানবতার সঠিক সংজ্ঞা শেখাতে শিক্ষকদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

রচনা প্রতিযোগিতায় মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় এক হাজার শিক্ষার্থী অংশ নেন। মোট ১২ জনকে বিজয়ী হিসেবে নির্বাচন করা হয়। তাদের মধ্যে প্রথম বিজয়ীকে ৫০ হাজার টাকা, ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট, দ্বিতীয় বিজয়ীকে ৩০ হাজার টাকা, ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট, তৃতীয় বিজয়ীকে ১৫ হাজার টাকা, ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট এবং অন্যদের হাতে সার্টিফিকেট ও ক্রেস্ট তুলে দেয়া হয়।

 92 total views,  1 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top