নো এক্সাম ‘No Exam’ উপন্যাস নিয়ে দুটি কথা

বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে একটি গবেষণাধর্মী মুক্তিযুদ্ধের আদর্শনির্ভর সমাজবিক্ষণমূলক উপপন্যাস ‘নো এক্সাম no exam’ বর্তমান সময়ের দাবির স্বার্থক চিত্রায়ণ এ উপন্যাস। বাংলাদেশের সর্বস্তরের পাঠক বিশেষত স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থী এবং তাদের অভিভাবক, পিতামাতা, শিক্ষকদের একান্ত মনের কথা এ উপন্যাসে গাল্পিক আকারে প্রকাশিত হয়েছে।


পরীক্ষানির্ভর এ শিক্ষাব্যবস্থা পচা দুর্গন্ধযুক্ত পদ্ধতি। তাই প্রোডাক্টগুলোতে অল্পতেই পচন ধরে, ফলে এ শিক্ষা সোনা ফলাতে পারে না। শিক্ষাই জাতির মেরুদণ্্ড। তাই মেরুদন্্ডের ব্যাধিসম পরীক্ষানির্ভর এ শিক্ষাপদ্ধতি যত দ্রæত বাদ দেওয়া হবে ততই মঙ্গল। ব্যাধিহীন মেরুদÐ নিয়ে বাঙালি দ্রæত সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারবে।


মুক্তিযুদ্ধের আদর্শভিত্তিক সমাজবিক্ষণমূলক এ উপন্যাসে বাংলাদেশের শিক্ষা ও অর্থনীতির ভঙ্গুর ভিত্তির কারণসমূহ বিশ্লেষণপূর্বক যুগোপযোগী সর্বোচ্চ সমাধান একটি মৌলিক নান্দলিক গল্পের মুকুটপরে রূপক ও চিত্রকল্পের ডানার রঙের সমন্বয়ে এক দার্শনিক বিমূর্ত মূর্তি দাঁড়িয়ে গেছে। মানবতার আদর্শে মনোবৈজ্ঞানিক দৃষ্টিতে সে মূর্তিতে শিক্ষা ও অর্থনীতির সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা যোগ করলেই বাংলাদেশ হয়ে উঠবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা।
এ উপন্যাসে সমাজের যে প্রতিবিম্ব প্রতিফলিত হয়েছে তাতে শিল্পীমনের ছোঁয়া স্পষ্ট। শৈল্পিক এ সৃষ্টির সাথে কাকতালীয়ভাবে কোন ঘটনা, চরিত্র, ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের নাম মিলে গেলে লেখক দায়ী নয়। একটি চিন্তাশীল সাবলীল শ্রæতিমধুর এবং প্রাঞ্জল ভাষার সুখ পাঠ্য উপন্যাস নো এক্সাম ‘ঘড় ঊীধস’Ñযা শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক, নীতিনির্ধারকসহ সর্বস্তরের পাঠকের পড়া দরকার।

 380 total views,  1 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top