সরকারি স্কুলে আবেদন সাড়ে ৪ লাখ, বেসরকারিতে প্রায় ২ লাখ

অনলাইন ডেস্ক: ২০২২ শিক্ষাবর্ষে মহানগর থেকে উপজেলা পর্যন্ত এবারে শিক্ষার্থী ভর্তি হবে অনলাইন লটারির মাধ্যমে। গতবছর শিক্ষার্থীরা সরকারি মাধ্যমিকে লটারির মাধ্যমে ভর্তি হয়েছিলো। তবে প্রথমবারের মত বেসরকারি বিদ্যালয়গুলোতেও একই পদ্ধতিতে ভর্তি হবে শিক্ষার্থীরা।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর জানায়, সরকারি ও বেসরকরি স্কুলগুলোতে একই দিন থেকে আবেদন শরু হয়েছে। কিন্তু বেসরকারি বিদ্যালয়গুলোর তুলনায় সরকারিতে দ্বিগুনের বেশি আবেদন জমা পড়েছে। এছাড়াও ডিজিটাল জন্মনিবন্ধন জটিলতায় আবেদন করতে পারছে না হাজারো শিক্ষার্থী।

মাউশির দেয়া তথ্যে জানা যায়, গত ২৫ নভেম্বর স্কুলগুলোতে ভর্তির জন্য অনলাইন আবেদন শুরু হয়। সারাদেশে সরকারি স্কুলে ভর্তিতে মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত ৪ লাখ ৪৫ হাজার ৮৭৪টি আবেদন এসেছে। আর বেসরকারি স্কুলে ভর্তির জন্য ১ লাখ ৭৮ হাজার ২৩টি আবেদন জমা হয়েছে। আগামী ৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত অনলাইন আবেদন কার্যক্রম চলবে। এবার ভর্তির আবেদন ফি নির্ধারণ করা হয়েছে ১১০ টাকা, যা শুধু টেলিটক প্রি-পেইড থেকে এসএমএসের মাধ্যমে পরিশোধ করা যাবে।

এদিকে, ঢাকা মহানগরীর ৪৪টি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় (তিনটি ফিডার শাখাসহ) তিনটি ভিন্ন গ্রুপে বিভক্ত থাকবে। আবেদনের সময় একজন প্রার্থী একই গ্রুপে পছন্দের ক্রমানুসারে সর্বাধিক পাঁচটি বিদ্যালয় নির্বাচন করতে পারবে। শিক্ষা মন্ত্রণায়ের নির্দেশনা অনুযায়ী ২০২২ শিক্ষাবর্ষে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তির জন্য শিক্ষার্থীর বয়স কমপক্ষে ৬ বছর হতে হবে।

 58 total views,  2 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top