বাজারে ফোনগুলোর মধ্যে ই সিম সমর্থন করে কোনগুলো

অনলাইন ডেস্ক: দেশে প্রথমবারের মতো ই সিম চালুর ঘোষণা দিয়েছে মোবাইল ফোন অপারেটর কোম্পানি গ্রামীণফোন। আশা করা যায়, অদূর ভবিষ্যতে অন্য অপরেটররাও এই প্রযুক্তি নিয়ে আসবে গ্রাহকদের জন্য।

ভবিষ্যতে সম্ভবত সব স্মার্টফোনেই ই সিম সমর্থন থাকবে। কিন্তু, আপনার হাতে থাকা ফোনটি কি এরইমধ্যে এই প্রযুক্তিবান্ধব? মোবাইল ফোন বিষয়ে কারিগরি তথ্যের বিভিন্ন উৎস থেকে আসুন দেখে নেই এরইমধ্যে আপনার হাতে বা দোকানের শোকেইসে থাকা ফোনগুলোর মধ্যে কোনগুলো ই সিম সমর্থন করে-

অ্যাপল ডিভাইস
আইফোন ১১ সিরিজ: ‎আইফোন ১১, ‎আইফোন ১১ প্রো‎, আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স‎।
‎আইফোন ১২ সিরিজ: আইফোন ১২ মিনি, ‎আইফোন ১২‎, ‎আইফোন ১২ ম্যাক্স‎, ‎আইফোন ১২ ম্যাক্স প্রো‎।
‎আইফোন ১৩ সিরিজ: আইফোন ১৩ মিনি‎, ‎আইফোন ১৩‎, ‎আইফোন ১৩ প্রো‎, ‎আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স‎।
‎আইফোন এক্স সিরিজ: আইফোন এক্সএস‎, ‎আইফোন এক্সএস ম্যাক্স‎, ‎আইফোন এক্সআর।
‎আইফোন এসই সিরিজ: ‎আইফোন এসই (কেবল ২০২০) মডেল‎।
‎আইপ্যাড: ‎আইপ্যাড এয়ার (৩য় জেনারেশন)‎, ‎আইপ্যাড প্রো (৩য় জেনারেশন)‎, ‎আইপ্যাড মিনি (৫ম জেনারেশন)‎।
অ্যাপল ওয়াচ: ‎ওয়াচ সিরিজ ৩, ‎৪, ৫ ‎ও ৬।

অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে
‎স্যামসাং ফোল্ড ও ফ্লিপ ফোন: ‎স্যামসাং গ্যালাক্সি ফোল্ড‎, স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড২ ৫জি, স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড৩ ৫জি‎, ‎‎স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফ্লিপ‎।
২০ সিরিজ: স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২০, ‎স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২০+‎, ‎স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২০ আলট্রা‎, ‎স্যামসাং নোট ২০+।‎
২১ সিরিজ: স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২১, ‎স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২১+ ৫জি‎, স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২১+ আলট্রা ৫জি।
গুগল পিক্সেল: ‎গুগল পিক্সেল ৩ এবং ৩ এক্সএল‎, ‎গুগল পিক্সেল ৩ধ এবং ৩ধ ঢখ‎, ‎গুগল পিক্সেল ৪ এবং ৪ এক্সএল‎, ‎গুগল পিক্সেল ৪অ ৫জি‎, ‎গুগল পিক্সেল ২ এবং ২ এক্সএল‎, ‎গুগল পিক্সেল ৫‎, ‎গুগল পিক্সেল ৫এ‎, ‎গুগল পিক্সেল ৬‎, ‎গুগল পিক্সেল ৬ প্রো‎।
হুয়াওয়ে: হুয়াওয়ে পি৪০, হুয়াওয়ে পি৪০ প্রো, হুয়াওয়ে পি৫০ প্রো, হুয়াওয়ে মেইট ৪০ প্রো।
অপো: অপো ফাইন্ড এক্স৩ প্রো, অপো রিনো ৫এ, অপো রিনো ৬ প্রো ৫জি।

ই সিম সমর্থন করা ‎অন্যান্য অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস
‎মটোরোলা রেজার ২০১৯, নু মোবাইল এক্স৫, ‎জেমিনাই পিডিএ‎, ‎রাকুটেন মিনি‎, ‎সনি এক্সপেরিয়া ১০ থ্রি।
খেয়াল রাখুন
আপাতত এই মডেলগুলো ই সিম সমর্থন করছে। এর মধ্যে আইপ্যাড ও আইফোনের মডেলগুলো সবোচ্চ ২০টি ই সিম সমর্থন করে। অ্যাপল ওয়াচ এবং অন্যান্য মোবাইল ফোনগুলো একটি করে ই সিম সমর্থন করে।
মনে রাখা দরকার, সিমযুক্ত ফোন ব্যবহার করার বেলায় যেমন নেটওয়ার্ক আনলকড ফোন দরকার হয়, ই সিম ব্যবহার করতে গেলেও একই নিয়ম মানতে হবে।

 172 total views,  1 views today

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Top